কিশোরগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি: আরও ৮ হাজার হেক্টর জমি পানির নিচে

কিশোরগঞ্জের হাওর এলাকার বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। অসময়ে টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। কৃষি বিভাগের তথ্য মতে তলিয়ে গেছে ৫২ হেক্টর জমির ধান। বাধ্য হয়ে য়ে কৃষকরা পানির নীচ থেকে পচে যাওয়া আধা পাকা ধান তুলে আনছেন।

গত দুই দিনে হাওর এলাকার সব নদ-নদীর পানি আরও বেড়েছে। টানা বৃষ্টি ও ঢলের পানিতে তাড়াইল উপজেলার নেনদার বাঁধ ও হুলিয়ার বাঁধ ভেঙে গেছে। এছাড়াও ভেঙে গেছে ইটনার থানেশ্বর ও বড়শিকুরা বাঁধ। এর ফলে তলিয়ে গেছে আরও আট হাজার হেক্টরের বেশি জমির ফসল।

কৃষি বিভাগের দেওয়া তথ্য মতে অসময়ে বন্যার কারণে এ পর্যন্ত ৫২ হাজার হেক্টর জমির বোরো ফসল তলিয়ে গেছে। তবে চাষীদের দেওয়া বক্তব্য ও সূত্র অনুযায়ী এর পরিমাণ প্রায় ৭০ হাজার হেক্টর হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। নিরুপায় কৃষকরা বাধ্য হয়ে পানির নীচ থেকে তুলে আনছেন পচে যাওয়া আধা-পাকা ধান। এসব এলার জমিগুলো বছরের ছয় মাস পানির নীচে থাকে। তাই বোরো ফসলই তাদের একমাত্র ভরসা। বছরের একমাত্র ফসল হারিয়ে এখন বিপাকে পড়েছেন এ এলাকার কৃষকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *