ম্যারাডোনা–বিলার্দোর সমালোচনায় বিনয়ী সাম্পাওলি

দুজনই সোজা সাপ্টা কথার মানুষ। রাখঢাক নেই, মুখে যা আসে তা-ই বলে ফেলেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা ও কার্লোস বিলার্দো। আর্জেন্টিনার সম্ভাব্য নতুন কোচ হিসেবে হোর্হে সাম্পাওলির নিয়োগের বিরোধিতা করেছেন দুজনই। প্রশ্ন তুলেছেন ‘আলবিসেলেস্তেদের’ কোচ হিসেবে সাম্পাওলির যোগ্যতা নিয়ে। কিন্তু ইটের বদলে পাটকেল ছুড়ে নয়, কূটনৈতিকভাবেই সমালোচনার জবাব দিয়েছেন সাম্পাওলি। দুজনের সমালোচনাকে ‘নানা মুনির নানা মত’ হিসেবেই দেখছেন সেভিয়ার আর্জেন্টাইন কোচ।

আনুষ্ঠানিক ঘোষণাটা এখনো না এলেও, সাম্পাওলিই এদগার্দো বাউজার উত্তরসূরি হতে যাচ্ছেন বলে খবর। আর্জেন্টাইন এক টিভি চ্যানেলের কাছে আর্জেন্টিনার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (এএফএ) নতুন সভাপতি ক্লদিও তাপিয়াও স্বীকার করেছেন, ‘সাম্পাওলিকে কোচ করার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়ে গেছে।’ কিন্তু স্প্যানিশ লিগ শেষ না হওয়ায় তাঁকে কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার চূড়ান্ত ঘোষণা দেয়নি এএফএ।
মেসিদের কোচ হিসেবে সাম্পাওলিকে পছন্দ নয় ম্যারাডোনার। সেটি স্পষ্ট জানিয়ে তাঁর যোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন ম্যারাডোনা, ‘সাম্পাওলির জন্য এত প্রশংসা বাড়াবাড়ি মনে হচ্ছে আমার কাছে। আর্জেন্টিনা দলটা নতুন করে গড়ার কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু সাম্পাওলি কি এর জন্য সঠিক মানুষ? ওর কি আমাদের দলের খেলোয়াড়দের সঙ্গে সে রকম কোনো বন্ধন আছে?’
সাম্পাওলি সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে সম্প্রতি মার্কাকে বিলার্দো বলেছিলেন, ‘আসল কোচদের নিয়ে কথা বলুন, চতুর্থ শ্রেণির কোন কোচকে নিয়ে নয়।’
বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে ম্যারাডোনা ও বিলার্দোর মন্তব্য নিয়েই প্রশ্ন করা হয়েছিল সাম্পাওলিকে। ৫৭ বছর বয়সী এই আর্জেন্টাইন উত্তর দিয়েছেন, ‘এসব ফুটবলের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের মতামত। আমার বলার কিছু নেই। ভবিষ্যৎ নিয়ে কথা বলতে ভয় পাচ্ছি আমি। কারণ এই মুহূর্তে আমাদের অনেক কাজ করার বাকি।’ ইএসপিএন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *