সারাদেশ

জামালপুরে অর্থের বিনিময়ে পুলিশে চাকরির প্রতিশ্রুতি, আটক ৩

ডেস্ক রিপোর্ট: জামালপুরে অর্থের বিনিময়ে পুলিশে চাকরির প্রতিশ্রুতি, আটক ৩

জামালপুরে অর্থের বিনিময়ে পুলিশে চাকরির প্রতিশ্রুতি, আটক ৩

জামালপুরে পুলিশের কনস্টেবল পদে অর্থের বিনিময়ে চাকরি পাইয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতির অভিযোগে প্রতারক চক্রের তিন সদস্যকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

বুধবার (১৩ মার্চ) বিকেলে জামালপুর পুলিশ লাইন্সে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল নিয়োগের চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে বিষয়টি জানান পুলিশ সুপার মো: কামরুজ্জামান।

পুলিশ সুপার বলেন, ইসলামপুর উপজেলার বাটিকামারি গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেনের ছেলে প্রতারক শামীম হোসেন অর্থের বিনিময়ে কনস্টেবল পদে চাকরি পাইয়ে দেয়ার জন্য চাকরি প্রত্যাশী একই উপজেলার আগুনেরচর গ্রামের শহিদুর রহমানের ছেলে তরিকুলের চাচা নবী হোসেনের সাথে চুক্তি করেন।

একই উপজেলার গাওকুড়া গ্রামের আশরাফ ঢালী তাদের মধ্যে মধ্যস্থতা করে পুলিশে চাকরি পাওয়ার পর তরিকুলকের তার মেয়েকে বিয়ে করার শর্ত দেন এবং প্রতারক শামীম হোসেনকে ইসলামপুর উপজেলার রুপালী ব্যাংকের ধর্মকুড়া বাজার শাখার অনুকূলে ১৫ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার চেক প্রদান করেন। তাছাড়া চাকরি প্রত্যাশী তরিকুলের চচা নবী হোসেন সিকিউরিটি মানি হিসেবে মধ্যস্থতাকারী আশরাফ ঢালীকেও নগদ ৬ লক্ষ টাকা প্রদান করেন।

বিষয়টি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পেরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ প্রতারক চক্রের সদস্য শামীম হোসেনকে পুলিশ লাইন্স সংলগ্ন জামালপুর পৌর এলাকার বেলটিয়া থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে এবং তার নিকট থেকে চেক ও টাকা জব্দ করে। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে নবী হোসেন ও আশরাফ ঢালীকেও আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ।

এর আগে বিভিন্ন ধাপ পেরিয়ে চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণ ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে মোট ৫৮ জনের নাম ঘোষণা করেন পুলিশ সুপার। এদের মধ্যে ৪৯ জন পুরুষ ৯ জন নারী।

পুলিশ সুপার ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল নিয়োগের চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে বলেন, পুলিশে চাকরির জন্য একজনের মেধা ও যোগ্যতাই যথেষ্ট। অর্থের বিনিময়ে চাকরি পাওয়ার কোন সুযোগ নেই।

আজ যারা চূড়ান্তভাবে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে তারা প্রত্যেকেই তাদের মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতেই চাকরি পেয়েছে। সেই সাথে প্রতারণার আশ্রয় নিবে তাদের আইনের আওতায় আনার জন্যও পুলিশ সচেষ্ট রয়েছে। পরে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল হিসেবে নির্বাচিত সকলকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান পুলিশ সুপার।

দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের মাঝে ইফতার বিতরণ

দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের মাঝে ইফতার বিতরণ

পবিত্র রমজান উপলক্ষে দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের মাঝে ধারাবাহিকভাবে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করেছে জাতীয় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সংস্থা।

সোমবার (১১ মার্চ) থেকে জাতীয় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সংস্থার নিজস্ব অর্থায়নে এ ইফতার সামগ্রী বিতরণ শুরু করা হয়।

সংস্থাটির উদ্যোগে ধারাবাহিকভাবে ৩ দিনব্যাপী (১১, ১২, ও ১৩ মার্চ) ঢাকা মহানগরীতে বসবাসরত ও ঢাকা জেলার ৫০০ দৃষ্টি প্রতিবন্ধী পরিবারের মাঝে পবিত্র রমজান উপলক্ষে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হবে।

ইফতার সামগ্রীর প্রতিটি প্যাকেটে রয়েছে- ২ কেজি ছোলার ডাল, ১ কেজি খেসারির ডাল, ২ কেজি চিনি, ২ কেজি চিড়া, ১ কেজি লবণ, ৫০০ গ্রাম খেজুর ও ২ লিটার সয়াবিন তেল।

বুধবার (১৩ মার্চ) সকালে এ উপলক্ষ্যে পুরাণ ঢাকায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

জাতীয় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সংস্থার কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান নূরুল আলম সিদ্দিক এর সভাপতিত্বে এবং মহাসচিব আইয়ুব আলী হাওলাদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লক্ষ্মীপুর ৩ আসনের সংসদ সদস্য জনাব আলহাজ গোলাম ফারুক পিংকু।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- জনাব ওমর বিন আব্দুল আজিজ (তামিম), ঢাকা দ: সিটি করপোরেশনের ২৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিরা দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের উদ্দেশ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন।

ইফতার সামগ্রী বিতরণের সময় জাতীয় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সংস্থার কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব আইয়ুব আলী হাওলাদার প্রতিবন্ধীবান্ধব সরকার বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট কয়েকটি দাবি পেশ করেন। দাবিগুলো হচ্ছে- সংস্থার প্রধান কার্যালয়, ৬ অরফানেজ রোড, বকশিবাজার, ঢাকা-১২১১ এর বাড়িটি বিনামূল্যে স্থায়ীভাবে বরাদ্দ প্রদান করা, প্রতিবন্ধী ভাতা বৃদ্ধি করা, যোগ্যতার ভিত্তিতে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা এবং অসহায়, হতদরিদ্র, সুবিধাবঞ্চিত দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের ভিক্ষাবৃত্তির হাত থেকে মুক্ত করে তাদের ছেলে-মেয়ে, ভাই-বোন যে কাউকে যোগ্যতার ভিত্তিতে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা।

;

নীলফামারীতে শ্রমিক নেতাসহ ৫ জুয়ারি কারাগারে

ছবি: বার্তা২৪.কম

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ৫ জুয়ারিকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

বুধবার (১৩ মার্চ) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়। এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মাগুড়া বাসস্ট্যান্ডে এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- মাগুড়া বানিয়া পাড়া গ্রামের মৃত মেনাজ উদ্দিন (ভোল্টং) এর ছেলে মাগুড়া মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম মিয়া( ৪০), মাগুড়া কাজী পাড়া গ্রামের আব্দুল আজিজ (ভুলু) মামুদের ছেলে মোর্সেদ আলী( ৩২), খামাত পাড়া গ্রামের বকুল হোসেনের ছেলে বাদশা মিয়া (৪৫), মাগুড়া মিয়া পাড়া গ্রামের মৃত আলাউদ্দিনের ছেলে আব্দুল কুদ্দুছ (৩৮) ও একই গ্রামের বক্কর কসাইয়ের ছেলে মিঠুল (২৮)।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ৫ জুয়ারিকে আটক করা হয়। পরে মামলা দায়ের করে আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পলাশ চন্দ্র মন্ডল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ৫ জন জুয়ারিকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

;

দগ্ধ কেউ শঙ্কামুক্ত নন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ছবি: সংগৃহীত

গাজীপুরের কালিয়াকৈর একটি টিনসেড বাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ৭ শিশুসহ অন্তত ৩০ জন দগ্ধ হয়েছেন। এদের মধ্যে ৮ জনের ৯০ শতাংশ পুড়ে গেছে। তাদের আইসিইউতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। 

বুধবার (১৩ মার্চ) দগ্ধদের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে দেখতে গিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সামন্ত লাল সেন এসব তথ্য জানান।

গাজীপুরে দগ্ধ ৩০ জনকে বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি দগ্ধদের কেউ শঙ্কামুক্ত নয় বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এর আগে বুধবার বিকেল সোয়া ৫টার দিকে কালিয়াকৈর টপস্টার নামক এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। 

;

বৃহস্পতিবার সকালেই সোমালিয়া উপকূলে পৌঁছাবে এমভি আবদুল্লাহ!

ছবি: সংগৃহীত

ভারত মহাসাগরে জলদস্যুদের কবলে পড়া বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ এখনো সোমালিয়া উপকূল থেকে ১৭০ নটিক্যাল মাইল দূরে আছে। ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম ব্যুরোর বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ মার্চেন্ট মেরিন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন। অবশ্য জোয়ারের কারণে স্বাভাবিকের চেয়ে দ্রুতই গন্তব্যে জাহাজটি নিয়ে যেতে পারছে জলদস্যুরা।

বুধবার রাত ৮টায় অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, জাহাজটি সোমালিয়া উপকূল থেকে ১৭০ নটিক্যাল মাইল দূরে আছে। তবে জোয়ারের সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে গত ৫ ঘণ্টায় জাহাজটি তার গতি বাড়িয়েছে। এভাবে একই গতিতে চলতে থাকলে বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে জাহাজটি সোমালিয়া উপকূলে পৌঁছে যাবে বলে আশা করছি।’

তবে জলদস্যুদের কবলে পড়ার ৩০ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও এখনো মুক্তিপণ বা দাবির বিষয়ে মালিকপক্ষের সঙ্গে কেউ যোগাযোগ করেনি। ফলে নাবিক ও জাহাজের গন্তব্য সম্পর্কে এখনো স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যায়নি।

বাংলাদেশ মার্চেন্ট মেরিন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের জেনারেল সেক্রেটারি ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেন বলেছেন, জাহাজের নাবিকদের সঙ্গে মালিকপক্ষের মধ্যে কোনো যোগাযোগ হয়নি। তাই তাদের দাবি বা মুক্তিপণের বিষয়ে এখনো জানা যায়নি।’

‘গোল্ডেন হক’ নামের জাহাজটি বাংলাদেশের কবির গ্রুপের সহযোগী সংস্থা এস আর শিপিং লিমিটেডের বহরে যুক্ত হওয়ার পর এর নাম হয় ‘এমভি আবদুল্লাহ’। মোজাম্বিকের মাপুতু বন্দর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যাওয়ার পথে মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় বেলা দেড়টায় জাহাজটিতে উঠে নিয়ন্ত্রণ নেয় সোমালিয়ার জলদস্যুরা। জাহাজটিতে ৫৫ হাজার টন কয়লা রয়েছে। জাহাজে থাকা ২৩ নাবিকের সবাই বাংলাদেশি। মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত জাহাজের নাবিকদের সঙ্গে পরিবারের সদস্যদের যোগাযোগ ছিল। অনেকেই ভয়েস মেসেজ পাঠিয়ে তাদের পরিস্থিতির কথা জানান। কিন্তু প্রায় একদিন ধরে পরিবারের সদস্যদের বিষয়ে জানতে না পেরে তাদের মধ্যে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা কাজ করছে। যদিওবা সরকার ও মালিকপক্ষ থেকে বারবার তাদের আশ্বস্ত করা হচ্ছে।

বিভিন্ন মাধ্যমে কথা বলে জানা গেছে, এমন পরিস্থিতিতে স্বাভাবিকভাবে জলদস্যুরা জিম্মি করেই যোগাযোগ শুরু করে না। আগে নিজেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে তারা। সেজন্য শুরুতেই নিজেদের উপকূলে নিয়ে যাওয়া হয় নাবিকসহ জাহাজকে। পরে সেখানে পৌঁছার পর মুক্তিপণ বা দাবির বিষয়ে আলাপ শুরু করে। যে জায়গা থেকে জাহাজটি দখলে নেওয়া হয়েছে সেখান থেকে সোমালিয়া উপকূলে পৌঁছাতে আড়াইদিন সময় লাগার কথা। সে হিসেবে বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) জাহাজটির অবস্থান ও নাবিকদের বিষয়ে নতুন তথ্য পাওয়ার সম্ভাবনা আছে। বাংলাদেশ মার্চেন্ট মেরিন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেনও সেই ধারণাই দিয়েছেন।

;

সংবাদটি প্রথম প্রকাশিত হয় বার্তা ২৪-এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *