খেলার খবর

ধনঞ্জয়া-মেন্ডিসের সেঞ্চুরি, বাংলাদেশের টার্গেট ৫১১

ডেস্ক রিপোর্ট: ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ও কামিন্দু মেন্ডিস; চলমান টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের জন্য এক আতঙ্কের নামেই পরিণত হল। প্রথম ইনিংসে ২০২ রানের জুটির পর দ্বিতীয় ইনিংসে ১৭৩ রানের জুটি। দুই ইনিংসেই দুই ব্যাটার পেয়েছেন সেঞ্চুরির দেখা। লঙ্কানদের দ্বিতীয় ইনিংস থেমেছে ৪১৮ রানে। আর তাতে বাংলাদেশের সামনে সিলেট টেস্টে লক্ষ্যটা দাঁড়িয়েছে ৫১১ রানের।

যেই টার্গেট টপকে ম্যাচ জয়ের রেকর্ড বাংলাদেশ তো দূরের থাক নেই কারোরই। টেস্ট ক্রিকেটের দীর্ঘ ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৪১৮ রানের টার্গেট টপকে জয় পেয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২০০৩ সালে অ্যান্টিগা টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেই জয়টিই এখন অবধি সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড।

এর আগে অবশ্য প্রথম ইনিংসে ৯২ রানের লিড পাওয়া শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় ইনিংসে ইঙ্গিত দিয়েছিল দ্রুতই থামার। দ্বিতীয় দিন শেষ করেছিল ১১৯ রানে পাঁচ উইকেট খরচ করে। তাই ধরা হচ্ছিল লঙ্কানদের তৃতীয় দিনে ধসিয়ে দিয়ে লক্ষ্যটা নাগালের মধ্যেই রাখতে পারবে বাংলাদেশ। তৃতীয় দিনের শুরুতে সেই আভাসও মিলছিল।

তবে এরপরই যেন সব এলোমেলো। ধনঞ্জয়াকে সঙ্গ দিতে নামেন মেন্ডিস। এরপর এই দু’জনে হাল ধরলেন। মনে করিয়ে দিলেন প্রথম ইনিংসের কথা। আরও একবার রিপিট করে দেখালেন নিজেদের প্রথম ইনিংসটাকে। তাতে ম্যাচটা একরকম ফসকেই গেল বাংলাদেশের হাত থেকে। এরপর পরিস্থিতি এমন হয়ে যায় যে এই জুটি ভাঙতে পারলে অন্তত স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পারে বাংলাদেশ।

অবশেষে ১৭৩ রানে ভাঙে সেই জুটি। ধনঞ্জয়াকে ১০৮ রানে ফেরান মেহেদী মিরাজ। অবশ্য এরপর প্রবাথ জয়সুরিয়ার সঙ্গে ফের জুটি গড়ে তুলেন মেন্ডিস। জমা করেন আরও ৬৭ রান। ভাবা হচ্ছিল এই জুটি ভাঙলে হয়তো ইনিংস ঘোষণা করে দেবে লঙ্কানরা। তা না করে আরেক দফায় মেন্ডিস জুটি গড়ে তুলেন লঙ্কানদের শেষ ব্যাটার কাসুন রাজিথার সঙ্গে। শেষ উইকেট জুটিতে আসে আরও ৫২ রান। একটা সময় তো মনে হচ্ছিল মেন্ডিসকে বুঝি শেষ পর্যন্ত থামানো যাবে না। তবে শেষ পর্যন্ত তিনি থেমেছেন ১৬৪ রানে। আর যতক্ষণে তিনি থেমেছেন ততক্ষণে বাংলাদেশের সামনে ৫১১ রানের পাহাড় লঙ্কানদের।

সংবাদটি প্রথম প্রকাশিত হয় বার্তা ২৪ ডট কম-এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *