বিনোদন

‘গোলাম মামুন’-এর মতো কাজ আগে করিনি : সাবিলা নূর

ডেস্ক রিপোর্টঃ ওটিটিতে একের পর এক সফল কাজ উপহার দিয়ে চলেছেন নির্মাতা শিহাব শাহীন। সেই নির্মাতার ঈদুল আযহা উপলক্ষ্যে নির্মিত ওয়েব সিরিজ ‘গোলাম মামুন’-এর প্রধান নারী চরিত্রে অভিনয় করেছেন দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী সাবিলা নূর। সিরিজটি এরইমধ্যে (গত ১৩ জুন) হইচই প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেয়েছে। এই সিরিজ ও সমসাময়িক বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন মাসিদ রণ

সাবিলা নূর / পোশাক : ট্রেন্ড মার্ট; ছবি : শেখ সাদী

‘গোলাম মামুন’ চলছে হইচইতে। সিরিজটি নিয়ে কিছু বলুন…

প্রতি ঈদে চেষ্টা করি দর্শককে ভিন্ন ধাচের কাজ উপহার দেওয়ার। এবার ঈদে ‘গোলাম মামুন’ তেমনি একটি কাজ। এটি আমার অভিনয় ক্যারিয়ারে সত্যিই একটি ভিন্নরকম কাজ। আমি নাটক করার ক্ষেত্রেই আজকাল বাচ-বিচার করি। আর ওটিটিতে কাজের সময় সেটা আরও অনেক গুরুত্বের সঙ্গে করি। নাটকে যে ধরনের চরিত্র বা গল্পে কাজ করি সে ধরনের কাজ ওটিটিতেও করব এটা আমি চাই না, কারণ ওটিটিতে দর্শক টাকা খরচ করে কনটেন্ট দেখেন।

সেদিক থেকে বলতে গেলে, নাটকে আমি এখন পর্যন্ত কোন পুলিশ অফিসারের চরিত্রে কাজ করিনি। ‘গোলাম মামুন’ সিরিজেই প্রথমবার পুলিশের চরিত্রে কাজ করেছি। তাই এই কাজটির প্রতি আমার আলাদা এক ধরনের টান কাজ করেছে। তাছাড়া শিহাব শাহীনের মতো নির্মাতার সঙ্গে তো বরাবরই কাজ করতে চাই। কারণ তার নির্মাণে আমি একাধিক সফল নাটকে অভিনয় করেছি। অপূর্ব ভাইয়ার সঙ্গেও তো অনেক কাজের অভিজ্ঞতা আছে। ওটিটিতে এটাই তাদের সঙ্গে প্রথম কাজ। এক ধরনের চ্যালেঞ্জ ছিল কাজটির মধ্যে। এক ধরনের চমকও রয়েছে। সিরিজটি তো এখন দর্শকের জন্য উন্মুক্ত হয়েই গেছে। সবাইকে দেখার আমন্ত্রন জানাচ্ছি।

সাবিলা নূর / পোশাক : ট্রেন্ড মার্ট; ছবি : শেখ সাদী

‘গোলাম মামুন’-এর সাড়া কেমন পাচ্ছেন?

মুক্তির পর অন্তর্জালে দারুণ প্রশংসা কুড়াচ্ছে সিরিজটি, খুব ভালো সাড়া পাচ্ছি। গল্প, নির্মাণ এবং অভিনয়ের প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন দর্শক। আমাকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করানোর জন্য অনেকেই অভনয়ের প্রশংসা করছেন।

সাবিলা নূর / পোশাক : ট্রেন্ড মার্ট; ছবি : শেখ সাদী

গণমাধ্যমে এসেছে, এই সিরিজে অপূর্বর নায়িকা শার্লিন ফারজানা। তাহলে আপনি কি করছে এখানে?

আসলে যদি কেউ এ কথা বলে থাকেন তাহলে সেটি ভুল তথ্য! কারণ এখানে গোলাম মামুনের কোন নায়িকা নেই। আসলে সিরিজের গল্পটাই এমন যে নায়ক-নায়িকা থাকার দরকার নেই, সবাই যার যার চরিত্র প্লে করেছেন।

সাবিলা নূর / পোশাক : ট্রেন্ড মার্ট; ছবি : শেখ সাদী

অনেকেই ওটিটিতে কাজ করছেন বলে টিভি নাটক থেকে একদম দূরে সরে যাচ্ছেন। আপনাকেও কি এবারের ঈদে কোন নাটকে দেখা যাবে না?

একদমই আমার ক্ষেত্রে তেমনটি ঘটেনি। আমি নাটকের মেয়ে, নাটক থেকেই দর্শক আমাকে আপন করে নিয়েছেন। ফলে নাটক আমি ছাড়ার প্রশ্নই নেই। আমার কথা হলো, যে মাধ্যমে ভালো গল্প ও চরিত্র পাবো, সেই মাধ্যমেই কাজ করবো। এবার ঈদেও তাই করেছি। গোলাম মামুন-এর শুটিং আগেভাগে শেষ হওয়ায় আমি ঈদের বেশকিছু নাটক করার সুযোগ পেয়েছি। তারমধ্যে একটি নাটকের কথা এরইমধ্যে অনেকে জেনে ফেলেছেন। নাটকটির নাম ‘প্রিন্সেস ডায়না’। পরিচালনা করেছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল। পার্থ শেখ নামে একজন নতুন অভিনেতার বিপরীতে কাজ করেছি এই নাটকে। এছাড়া পার্থর সঙ্গে ইমরাউল রাফাতের আরেকটি নাটকে অভিনয় করেছি। ‘সুতো’ নামের সেই নাটকে ইরেশ যাকেরও অভিনয় করেছেন।

জুনায়েদ বোগদাদির সঙ্গে এস আই মজুমদারের একটি নাটক করেছি, নাম ‘দ্বিতীয় আলো’। আবু হুরায়রা তানভীরের সঙ্গে করেছি ‘অর্ধাঙ্গীনি’ নামের একটি নাটক। গুণী অভিনেতা শ্যামল মাওলার সঙ্গে এর আগে আশফাক নিপুণের ‘কষ্টনীড়’ ওয়েব সিরিজে ভাই বোনের চরিত্রে কাজ করেছিলাম। তবে এবারই প্রথম নায়ক-নায়িকা হিসেবে অভিনয় করেছি একটি নাটকে। পরিচালনা করেছেন রাজীব পিয়ালের এই নাটকটির নাম ‘মাকড়শা’।

সাবিলা নূর / পোশাক : ট্রেন্ড মার্ট; ছবি : শেখ সাদী

‘প্রিন্সেস ডায়না’ নাটকের অভিজ্ঞতা কেমন?

এ নাটকে আমি যাত্রাপালার প্রিন্সেসের চরিত্রে কাজ করেছি। ছোটবেলা থেকেই নাচ করে আসছি। অভিনয়ের পাশাপাশি এখনো মঞ্চে নাচটা নিয়মিত করি। তবে যাত্রাপালার এই নাচ আমার জন্য নতুন অভিজ্ঞতা। এটি একটু ভিন্ন আঙ্গিকের নাচ। তারপরও নাচ জানা হিসেবে নতুন নাচের এই মুদ্রা আমাকে বাড়তি সুবিধা দিয়েছে। চরিত্রটির মধ্যে একটা চ্যালেঞ্জ আছে। বাস্তবে আমাদের সমাজে যাত্রাপালার নৃত্যশিল্পী বা নর্তকীর প্রতি গ্রাম্য প্রভাবশালীদের লোলুপ দৃষ্টি থাকে। তারা এই সব নারীকে ভোগবিলাসে ব্যবহার করতে চান। নাটকেও প্রিন্সেস ডায়ানার প্রতি সেই দৃষ্টিভঙ্গি প্রভাবশালীদের আছে। কাজটি করতে এসে নতুন কিছু শিখতে পরেছি। এ ধরনের নতুন গল্পে, নতুন চরিত্রে কাজটি করতে ভালোই লাগছে। নাটকটি চ্যানেল আইয়ের ঈদ অনুষ্ঠানমালায় প্রচারের কথা রয়েছে।

সাবিলা নূর / পোশাক : ট্রেন্ড মার্ট; ছবি : শেখ সাদী

নায়ক ছাড়া একটি নাটক করেছেন শুনলাম। সেটি নিয়ে একটু বিস্তারিত শুনতে চাই…

মুরসালিন শুভর পরিচালনায় ওই নাটকটির নাম ‘রাত বাকী’। শুটিং করেছি ময়মনসিংহের কবি নজরুল বিশ^বিদ্যালয়ে। শুধু তাই নয়, আমাদের কাস্ট এন্ড ক্রু সবই ছিল ওই বিশ^বিদ্যালয়ের নাট্যকলার শিক্ষার্থীরা। তারা তো সবাই একাডেমিকভাবে কাজটি শিখেছে। ফলে তাদের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতাই আলাদা। আমার তো ভীষণ ভালোলেগেছে এমন তরুণ সব মেধাবীদের সঙ্গে কাজ করতে পেরে। ভবিষ্যতে তাদের সঙ্গে আরও কাজ করতে চাই। ৪০ মিনিটের এই নাটকটি আবর্তিত হয়েছে আমার চরিত্রকে কেন্দ্র করে। সেখানে কোন পুরুষ প্রোটাগনিস্ট নেই। আশা করছি কাজটি যারা দেখবেন, তাদের ভাবনায় নতুন মাত্রা যোগ হবে।

সংবাদটি প্রথম প্রকাশিত হয় বার্তা ২৪ এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *