আন্তর্জাতিক

ইরানের ড্রোন হামলায় ইসরায়েলের জাহাজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে : মার্কিন কর্মকর্তা

ডেস্ক রিপোর্ট: ভারত মহাসাগরে ইরানের ইসলামিক বিপ্লবী গার্ড কর্পসের (আইআরজিসি) সন্দেহভাজন ড্রোন হামলায় ইসরায়েলের মালিকানাধীন একটি কার্গো জাহাজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে শনিবার (২৫ নভেম্বর) অভিযোগ করেছেন এক মার্কিন প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা।

রয়টার্স জানিয়েছে ওই মার্কিন কর্মকর্তা শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, ‘আমরা সচেতন যে, আইআরজিসির একটি সন্দেহভাজন শাহেদ-১৩৬ ইউএভি ভারত মহাসাগরে একটি বেসামরিক জাহাজে আঘাত হেনেছে। এতে জাহাজটির সামান্য ক্ষতি হয়েছে, তবে কোনও হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।’

মেরিটাইম সিকিউরিটি কোম্পানি অ্যামব্রে জানিয়েছে, ‘মাল্টার পতাকাবাহী, ফ্রান্স পরিচালিত কন্টেইনার জাহাজটি বিস্ফোরিত হওয়ার সময় মানুষবিহীন যানটিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়।’

অ্যাম্ব্রে আরও জানিয়েছে, ‘জাহাজটি একটি ইসরায়েলি সংস্থা দ্বারা পরিচালিত এবং এটিই জাহাজটিকে লক্ষ্যবস্তু করার কারণ হিসাবে মূল্যায়ন করা হয়েছে।’

ইয়েমেনের ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীরা দক্ষিণ লোহিত সাগরে ইসরায়েল-সংযুক্ত একটি পণ্যবাহী জাহাজ জব্দ করার প্রায় এক সপ্তাহ পরে এই হামলাটি হল।

এদিকে, ইরান সম্পর্কিত গোষ্ঠীগুলোর প্রতিরোধের অক্ষের অংশ হিসাবে নিজেদেরকে ঘোষণা করে হুথিরা।

ইসরায়েল হামাসকে আক্রমণের পর অক্টোবর থেকে ইসরায়েলকে লক্ষ্য করে ড্রোন এবং ক্ষেপণাস্ত্র হামলার একটি সিরিজ শুরু করেছে সশস্ত্র গোষ্ঠীটি।

তেল-আবিব জানিয়েছে, গত ৭ অক্টোবর হামাস যোদ্ধারা প্রায় ১,২০০ জনকে হত্যা এবং প্রায় ২৪০ জনকে জিম্মি করার পর গাজা উপত্যকার নিয়ন্ত্রণকারী হামাসকে চূর্ণ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ইসরায়েল।

গাজার হামাস সরকার বলেছে, ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে ইসরায়েলের লাগাতার বিমান বোমাবর্ষণ এবং স্থল অভিযানে এ পর্যন্ত প্রায় ১৫ হাজার বেসামরিক নিহত হয়েছে।

সংবাদটি প্রথম প্রকাশিত হয় বার্তা ২৪-এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *