সারাদেশ

যুদ্ধবিরতি শেষ হতেই হামলা: ৩ ঘণ্টায় নিহত ৩২ ফিলিস্তিনি

ডেস্ক রিপোর্ট: যুদ্ধবিরতি শেষ হতেই হামলা: ৩ ঘণ্টায় নিহত ৩২ ফিলিস্তিনি

ছবি: সংগৃহীত

যুদ্ধবিরতি শেষ হতে না হতেই আবারো গাজায় হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল।

শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) যুদ্ধ বিরতির মেয়াদ শেষে ফের লড়াই শুরু করেছে ইসরায়েল-হামাস। হামলার প্রথম ৩ ঘণ্টায় বিভিন্ন স্থানে ৩২ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

কাতারের মধ্যস্থতায় শুরু হওয়া গাজায় যুদ্ধবিরতির মেয়াদ শেষে শুক্রবার স্থানীয় সময় সকাল ৭টার পর গাজায় রকেট হামলা ও বন্দুকযুদ্ধ শুরু হয়। গাজায় হামলার বিষয়ে এক বিবৃতিতে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) জানায়, হামাস ইসরায়েলি ভূখণ্ডের দিকে রকেট ছোড়ায় গাজায় ফের হামলা শুরু হয়েছে। হামলার খবর নিশ্চিত করেছেন বার্তা সংস্থা এএফপি।

উল্লেখ্য, প্রথম দফায় চারদিনের যুদ্ধবিরতি চুক্তির বাস্তবায়ন শুরু হয় গত ২৪ নভেম্বর। পরে তা আরো দুদিনের জন্য বৃদ্ধি করা হয়। বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) আরো একদফায় এই চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হয়। যার মেয়াদ শেষ হয়েছে আজ (শুক্রবার)।

যুদ্ধবিরতিতে সবমিলিয়ে ২১০ জন ফিলিস্তিনি বন্দিকে মুক্তি দিয়েছে ইসরায়েল। অন্যদিকে হামাস মুক্তি দিয়েছে ১০০ জন ইসরায়েলি ও অন্যান্য বিদেশি নাগরিককে।

শুক্রবার যুদ্ধবিরতি শেষ হলেও আরো দুই দিনের যুদ্ধবিরতি বাড়ানোর লক্ষ্যে মিশরীয় ও কাতারি কর্মকর্তারা জোর আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। এরই মধ্যে আল জাজিরা জানিয়েছে, চতুর্থবারের মতো যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বৃদ্ধির জোর সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে। যদিও ইসরাইলের পক্ষ থেকে এখনও এ ব্যাপারে নিশ্চিত করা হয়নি।

আরও আট জিম্মিকে মুক্তি দিয়েছে হামাস

মুক্তি পাওয়া আট জিম্মি। ছবি : সংগৃহীত

গাজা যুদ্ধবিরতি সপ্তম দিনে আট জিম্মিকে মুক্তি দিয়েছে হামাস কর্তৃপক্ষ। মুক্তি প্রাপ্ত এসব জিম্মির মধ্যে উরুগুয়ে, মেক্সিকো এবং রাশিয়ার দ্বৈত নাগরিকও রয়েছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) এ খবর নিশ্চিত করেছে মধ্যস্থতাকারী দেশ কাতার।

কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মাজেদ আল-আনসারি বলেন, ‘যুদ্ধবিরতি চুক্তির অংশ হিসেবে আটজন ইসরায়েলি নাগরিককে মুক্তি দেওয়া হয়। এদের মধ্যে দুজন নাবালকসহ ছয় জন নারী রয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘গাজায় বন্দি থাকা মোট ১০ জিম্মির বিনিময়ে ফিলিস্তিনের ৩০ নাগরিককে ইসরাইয়েল কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।’

এদিকে কাতারের মধ্যস্থতায় শুরু হওয়া গাজায় যুদ্ধ বিরতির মেয়াদ শেষ হতে না হতেই ফের লড়াই শুরু করেছে ইসরায়েল-হামাস।

শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, ২৪ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া যুদ্ধ বিরতি দুই দফায় বর্ধিত হয়ে স্থানীয় সময় শুক্রবার সকাল ৭টায় শেষ হয়েছে। এরপর কোনও পক্ষই এই চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে কোনো ঘোষণা দেয়নি।

তবে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ শেষ হওয়ার এক ঘণ্টা আগে সামাজিক মাধ্যমে এক পোস্টে ইসরায়েল দাবি করে, তারা গাজা থেকে ছোড়া একটি রকেট প্রতিহত করেছে।

এছাড়াও হামাস ইসরায়েলে হামলা চালিয়ে যুদ্ধবিরতির শর্ত লঙ্ঘনের করেছে বলে অভিযোগ করেছে তারা।

;

গাজায় যুদ্ধবিরতি শেষ, ফের লড়াই শুরু

ছবি: সংগৃহীত

কাতারের মধ্যস্থতায় শুরু হওয়া গাজায় যুদ্ধ বিরতির মেয়াদ শেষ হতে না হতেই ফের লড়াই শুরু করেছে ইসরায়েল-হামাস।
শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, ২৪ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া যুদ্ধ বিরতি দুই দফায় বর্ধিত হয়ে স্থানীয় সময় শুক্রবার সকাল ৭টায় শেষ হয়েছে। এরপর কোনো পক্ষই এই চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে কোনো ঘোষণা দেয়নি।

তবে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ শেষ হওয়ার এক ঘণ্টা আগে সামাজিক মাধ্যমে এক পোস্টে ইসরায়েল দাবি করে, তারা গাজা থেকে ছোড়া একটি রকেট প্রতিহত করেছে। এছাড়াও হামাস ইসরায়েলে হামলা চালিয়ে যুদ্ধবিরতির শর্ত লঙ্ঘনের করেছে বলে অভিযোগ করে।

এদিকে হামাস পরিচালিত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইসরায়েলি বিমান হামলায় গাজার একাধিক এলাকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। যুদ্ধবিরতির ফলে গাজায় ১০০ জনেরও বেশি জিম্মিকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে । কিন্তু এখনো প্রায় ১৪০ জন বন্দী রয়ে গেছে বলে দাবি তাদের।

;

ইউক্রেনের মাইন বিস্ফোরণে রুশ জেনারেল নিহত

ছবি: বিবিসি

ইউক্রেনের একটি মাইন বিস্ফোরণে একজন রুশ জেনারেল নিহত হয়েছেন। দেশটির স্থানীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, নিহত ওই জেনারেলের নাম ভ্লাদিমির জাভাদস্কি। মৃত্যুর সময় তিনি ১৪ তম সেনা কোরের ডেপুটি কমান্ডার ছিলেন।

শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, ৪৫ বছর বয়সী মেজর জেনারেল জাভাদস্কি বুধবার (২৯ নভেম্বর) বিকেলে নিহত হন।
ঘটনাটি কোথায় ঘটেছে তা স্পষ্ট নয়, তবে ধারণা করা হচ্ছে তার ইউনিট সেই সময় খেরসন অঞ্চলে ছিল। তার বর্তমান পোস্টিংয়ের আগে তিনি মস্কোর বাইরে অবস্থিত অভিজাত কান্তেমিরভস্কি ট্যাঙ্ক বিভাগের কমান্ডার ছিলেন।

এর আগে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে শুরু হওয়া ইউক্রেনে মস্কোর আগ্রাসনের পর থেকে এ পর্যন্ত কমপক্ষে ছয়জন রাশিয়ান জেনারেল মারা গেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে এ ঘটনায় রাশিয়ান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে কোন কথা বলা হয়নি এবং এটি কোথায় ঘটেছে তা নিয়েও পরস্পরবিরোধী প্রতিবেদন রয়েছে।

এছাড়া নিহতদের ঘনিষ্ঠ আত্মীয়রা তাদের সম্পর্কে প্রকাশ্যে কথা বলার পরেও মন্ত্রণালয় বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে সিনিয়র অফিসারদের মৃত্যুর কথা উল্লেখ করেনি। এদিকে মেজর জাভাদস্কির মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হলে, তিনি হবেন সপ্তম রাশিয়ান জেনারেল যিনি সংঘাতে মারা গেছেন।

অতি সম্প্রতি লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওলেগ সোকভ ইউক্রেনের অধিকৃত দক্ষিণ উপকূলে বার্দিয়ানস্কে রুশ সামরিক কমান্ডারদের থাকার হোটেলে হামলার ঘটনায় নিহত হন।

অবশ্য ইউক্রেনীয় সূত্রগুলোর দাবি, রাশিয়ান জেনারেলদের আরও সাতজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। তবে তাদের মধ্যে অন্তত তিনজন এখনও জীবিত রয়েছেন বলে ইতোমধ্যেই প্রমাণিত হয়েছে।

;

ইসরায়েলের কারাগার থেকে মুক্তি পেল আরও ৩০ ফিলিস্তিনি

ছবি: সংগৃহীত

ইসরায়েলের কারাগার থেকে আরও ৩০ ফিলিস্তিনি বন্দি মুক্তি পেয়েছে। আর গাজা থেকে হামাস মুক্তি দিয়েছে ৬ ইসরায়েলি ২ বিদেশি নাগরিককে।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) রাতে তাদের মুক্তি দেয়া হয়। এর মধ্যদিয়ে এখন পর্যন্ত ১০৫ ইসরাইলি জিম্মির বিনিময়ে মোট ২৪০ ফিলিস্তিনি বন্দিকে মুক্তি দেওয়া হলো।

এর আগে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দুই নারী জিম্মিকে মুক্তি দেয় ফিলিস্তিনের মুক্তিকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস। মুক্তিপ্রাপ্তদের একজন ফ্রান্স ও ইসরাইলের দ্বৈত নাগরিক মিয়া সেম। ২১ বছর বয়সী তরুণী মিয়া সেমকে গত ৭ অক্টোবর হামলার পর একটি সংগীত উৎসব থেকে জিম্মি করে হামাস। অপরজন ইসরাইলি নাগরিক ৪০ বছর বয়সী আমিত সুজানা।

কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) রাত ১১টায় (বাংলাদেশ সময় রাত ৩টা) ইসরাইলি সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে জানায়, রেডক্রসের তথ্য মতে, ৬ ইসরাইলি নাগরিককে তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে এবং তারা এখন ইসরাইলের পথে রয়েছে।

কাতারের পক্ষ থেকেও ৮ জিম্মি মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেছেন, আজ মুক্তি পাওয়া ৮ জনের মধ্যে দুইজন কিশোর ও বাকি ৬ জন নারী। ৬ জনেরই দ্বৈত নাগরিকত্ব রয়েছে।

গত ২৪ নভেম্বর থেকে ইসরাইল ও হামাসের মধ্যে চারদিনের একটি যুদ্ধবিরতি শুরু হয়। পরে দুই দফায় এর মেয়াদ আরও তিন দিন বাড়ানো হয়। বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) সপ্তম দিনের মতো অস্থায়ী যুদ্ধবিরতি কার্যকর করা হয়। এই সময়ে মোট সাত দফায় বন্দি বিনিময় হয়েছে।

আজ শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) সকালে শেষ হওয়ার কথা। তবে আরও দুই দিনের যুদ্ধবিরতি বাড়ানোর লক্ষ্যে মিশরীয় ও কাতারি কর্মকর্তারা জোর আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। এরই মধ্যে আল জাজিরা জানিয়েছে, চতুর্থবারের মতো যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বৃদ্ধির জোর সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে। যদিও ইসরাইলের পক্ষ থেকে এখনও এ ব্যাপারে নিশ্চিত করা হয়নি।

;

সংবাদটি প্রথম প্রকাশিত হয় বার্তা ২৪-এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *