সারাদেশ

সাংবাদিক নিযার্তনের ঘটনায় জাবির ৪ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

ডেস্ক রিপোর্ট: সাংবাদিক নিযার্তনের ঘটনায় জাবির ৪ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

ছবি: বার্তা২৪.কম

সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের ৪ কর্মীকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কার ও জরিমানা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়া দুইজন শিক্ষার্থীকে জরিমানা ও সতর্ক করা হয়েছে।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) উপাচার্য অধ্যাপক নূরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সিন্ডিকেট সদস্য বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদের মধ্যে উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী আমিনুর রহমান সুমনকে ৬ মাসের বহিষ্কার ও ১৫ হাজার টাকা জরিমানা, ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের মোঃ তাওসিফ সারারকে (তুনান) ৬ মাসের বহিষ্কার ও ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ নাঈম হোসেনকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও ৩ মাসের বহিষ্কার, এবং নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষার্থী হৃদয় রায়কে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও ৩ মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়। অন্যদিকে একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের শিক্ষার্থী ইমতিয়াজ হোসাইন জিদান ও আবদুল্লাহ আল আদনানকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা ও সতর্কীকরণ নোটিশ দেয়া হয়।

বহিষ্কৃত সকলেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৮ ব্যাচ এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের আবাসিক শিক্ষার্থী। তবে আব্দুল্লাহ আল আদনান শাখা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক এবং বাকিরা সবাই শাখা ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মী।

প্রসঙ্গত, গত ২১ আগস্ট রাতে নিজ আবাসিক হলের সামনে ছাত্রলীগের কর্মীদের হাতে মারধরের শিকার হন বার্তা সংস্থা ইউএনবির বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি আসিফ আল মামুন। হলের গেস্টরুমে ছাত্রলীগের সভার ভিডিও করা সন্দেহে তাকে মারধর করা হয়। তখন তিনি একই হলের আবাসিক ছাত্র ও সাংবাদিক পরিচয় দিলে তিনি পুনরায় মারধরের শিকার হন।

জবিতে মাইগ্রেশন হওয়া শিক্ষার্থীদের কাগজপত্র জমাদানের নির্দেশ

ছবি: সংগৃহীত

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক সম্মান ও বিবিএ প্রথম বর্ষে গুচ্ছভুক্ত অন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অটো মাইগ্রেশনে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের কাগজপত্র জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান।

এর আগে এ বিষয়ে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক সম্মান ও বিবিএ প্রথম বর্ষে চূড়ান্ত ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের মধ্যে যারা গুচ্ছভুক্ত অন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অটো মাইগ্রেশন করে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছে তাদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার মূল নম্বরপত্র আগামী ১২ ডিসেম্বর তারিখের মধ্যে অফিস সময়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট ডিন অফিসে জমা দিতে হবে।

;

ইউজিসির খণ্ডকালীন সদস্য হলেন জবি উপাচার্য

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিমকে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) খণ্ডকালীন সদস্য হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) ইউজিসি সচিব ড. ফেরদৌস জামান স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়। 

জানা যায়, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন আদেশের ৪ (১) ও ৪ (৪) ধারার বিধান অনুসারে গৃহীত কমিশন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী দুই বছরের জন্য তিনি খণ্ডকালীন সদস্য হিসেবে মনোনীত হয়েছেন। তার এ নিয়োগ গত ৫ অক্টোবর ২০২৩ থেকে কার্যকর হবে। 

উল্লেখ্য, ৩০ নভেম্বর মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর-এর অনুমোদনক্রমে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সরকারি সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার এক অফিস আদেশের মাধ্যমে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০০৫ এর ১০(১) ধারা অনুযায়ী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সাবেক ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম-কে উপাচার্য পদে পরবর্তী চার বছরের জন্য নিয়োগ প্রদান করা হয়।

;

শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনায় ঢাবি ছাত্র ফ্রন্ট’র নিন্দা

শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনায় ঢাবি ছাত্র ফ্রন্ট’র নিন্দা

বিজয় একাত্তর হলের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শাখা।

সোমবার (০৪ ডিসেম্বর) সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট’র সদস্য মুহাম্মদ শওকত স্বাক্ষরিত এক যৌথ বিবৃতিতে এ প্রতিবাদ জানান সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার কাউন্সিল প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক সুহাইল আহমেদ শুভ ও সদস্য সচিব অদিতি ইসলাম।

নেতৃদ্বয় বিবৃতিতে বলেন, “গত ৩ ডিসেম্বর রাতে বিজয় একাত্তর হলের গেস্টরুমে বাংলা বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী হাবিবকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের কর্মীদের বিরুদ্ধে। ক্ষমতাসীন দলের ছাত্রসংগঠনের কর্মসূচিতে বেশ কয়েকদিন যাবত অংশগ্রহণ না করার ‘অভিযোগে’ তাকে এই নির্যাতনের শিকার হতে হয়৷ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সবকটি আবাসিক হলের নিত্যনৈমিত্তিক চিত্র এটি। স্বৈরাচারী আওয়ামী লীগ সরকার যে অন্যায় শাসন বহাল রেখেছে তার একনিষ্ঠ লাঠিয়াল বাহিনী হিসেবেই ছাত্রলীগ আজকে ক্যাম্পাসে এরূপ ত্রাসের সংস্কৃতি জারি রেখেছে।’’

‘‘আমরা অনেক আগে থেকেই বলে এসেছি, আবাসন সংকটকে জিম্মি করে শিক্ষার্থীদের জোরপূর্বক দলীয় কর্মসূচিতে নেওয়া ও তার পরিপূরক গেস্টরুম নির্যাতনের যে চর্চা ক্ষমতাসীন দলের ছাত্রসংগঠন করে আসছে তা বিশ্ববিদ্যালয় ধারণার সাথে সাংঘর্ষিক। এ ধরনের কর্মকাণ্ড শিক্ষার্থীদের স্বাধীন সত্তার বিকাশ ও মুক্তবুদ্ধি চর্চার পথকে রুদ্ধ করে দেয়। তা সত্ত্বেও বারংবার ধরনের ঘটনা ঘটেই চলেছে। প্রশাসনের উদাসীনতা এর জন্য সম্পূর্ণরূপে দায়ী।”

নেতৃবৃন্দ অনতিবিলম্বে এই ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ, হলগুলিতে মনিটরিং সেল গঠনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ পরিষদ কার্যকর করে নিয়মিত সভা আয়োজন করার দাবি জানান। একই সাথে সন্ত্রাস-দখলদারিত্বমুক্ত হল-ক্যাম্পাস নির্মাণের জন্য ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান শিক্ষার্থীদের প্রতি।

প্রসঙ্গত, রোববার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজয় একাত্তর হলের প্রথম বর্ষের ও বাংলা বিভাগের এক শিক্ষার্থীকে ‘গেস্টরুম নির্যাতন’ করার অভিযোগ উঠে ছাত্রলীগের একই গ্রুপের দ্বিতীয় বর্ষের সিনিয়র শিক্ষার্থীদের উপর। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীকে তাৎক্ষণিকভাবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

;

ইবি শাপলা ফোরামের সভাপতি ড. পরেশ, সম্পাদক ড. রবিউল 

ইবি শাপলা ফোরামের সভাপতি ড. পরেশ, সম্পাদক ড. রবিউল 

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সংগঠন শাপলা ফোরামের নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। এতে সভাপতি হয়েছেন ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্মন এবং সাধারণ সম্পাদক বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. রবিউল হোসেন।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) নির্বাচিত ১৫ জন প্রতিনিধিদের নিয়ে আলোচনা সাপেক্ষে এ কমিটি গঠন করা হয় বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, সহসভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আনিছুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জয়শ্রী সেন, কোষাধ্যক্ষ মো. রবিউল ইসলাম।

এছাড়া ১০ জন সদস্য মনোনীত হয়েছেন। তারা হলেন- অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর হোসেন, অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান, অধ্যাপক ড. মো. মামুনুর রহমান, অধ্যাপক ড. তপন কুমার জোদ্দার, অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল হক, অধ্যাপক ড. মাহবুবুল আরফিন, অধ্যাপক ড. শেলীনা নাসরীন, অধ্যাপক ড. শাহজাহান মন্ডল ও ড. সাজ্জাদ হোসেন।

এ বিষয়ে নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. রবিউল হোসেন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সংগঠন এটি। সবার সহযোগিতায় এগিয়ে নিতে চাই, এটাই আমার প্রত্যাশা।’

এর আগে শনিবার (২ ডিসেম্বর) মমতাজ ভবনের দ্বিতীয় তলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ৩০ জন প্রার্থীর মধ্যে সর্বোচ্চ ভোট প্রাপ্তদের মধ্যে থেকে ১৫ জন প্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েছেন।

;

সংবাদটি প্রথম প্রকাশিত হয় বার্তা ২৪-এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *