খেলার খবর

১৫ কোটি রুপি প্রতারণার শিকার ধোনি, করলেন মামলা

ডেস্ক রিপোর্ট: একুশ শতকে ভারতীয় ক্রিকেটের যত অর্জন তার প্রায় সবই এসেছে এমএস ধোনির হাত ধরে। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অধিনায়ক হিসেবে দলকে জিতিয়েছেন তিনটি আইসিসি ট্রফি। তার নেতৃত্বে ভারত পেয়েছে টি-টোয়েন্টি, ওয়ানডে ও আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির স্বাদ। তিনবার দলকে করেছেন এশিয়ার সেরা। এত সব অর্জনের পর ২০২০ সালে ধোনি তার বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছেন। তবে ঠিকই দেশটির ক্রিকেট-প্রেমীদের কাছে হয়ে আছেন এক আবেগের নাম। আর সেই নামটিকেই পুঁজি করে প্রতারণার ফাঁদ পেতেছিলেন দুই ভারতীয় ব্যবসায়ী। যাদের বিরুদ্ধে এবার আইনি পদক্ষেপ নিয়েছেন ধোনি।

ঘটনার শুরু ২০১৭ সালে, ধোনির নাম ব্যবহার করে বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় ক্রিকেট একাডেমি তৈরি কারার প্রস্তাব দেন অর্ক স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড নামের একটি প্রতিষ্ঠান। বিষয়টি ভালো লাগে ধোনির। ২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে চুক্তিতেই সই করেন কিংবদন্তি এই ক্রিকেটার। সেই চুক্তি অনুযায়ী ধোনিকে ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি ও প্রতিষ্ঠানের লাভের অংশ দেওয়ার কথা ছিল অর্ক স্পোর্টসের। তবে সেই চুক্তি পূরণ করেননি প্রতিষ্ঠানটি।

এই বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির দুই কর্ণধার দিবাকর ও সৌম্য বিশ্বাসের সঙ্গে যোগাযোগ করেও কোনো লাভ হয়নি ধোনির। পরে ২০২১ সালে অর্ক স্পোর্টসকে নিজের নাম ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে বলেন ধোনি। সেটিও মানেনি ওই প্রতিষ্ঠানটি। তারা ধোনির নাম ব্যবহার করে একাডেমির কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছিল। পরে বাধ্য হয়ে এই দু’জনের বিরুদ্ধে মামলা করার সিদ্ধান্ত নেন ধোনি।

দিবাকর ও সৌম্যের বিরুদ্ধে রাঁচির একটি আদালতে প্রতারণার মামলা দায়ের করেছেন ধোনি। যেখানে তাদের বিরুদ্ধে ১৫ কোটি রুপির প্রতারণার অভিযোগ এনেছেন তিনি। এ বিষয়য়ে ধোনির সংস্থা বিধি অ্যাসোসিয়েটসের পক্ষে দয়ানন্দ সিংহ জানিয়েছেন, ‘১৫ কোটি রুপিরও বেশি আর্থিক ক্ষতির শিকার হয়েছেন ধোনি। অর্ক স্পোর্টস চুক্তিভঙ্গ এবং প্রতারণা করেছে। চুক্তি অনুযায়ী টাকা দেওয়ার কথা বলা হলেও অভিযুক্ত সংস্থাটির থেকে সাড়া পাওয়া যায়নি। তাই বাধ্য হয়ে তাদের বিরুদ্ধে আদালতে প্রতারণার মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

সংবাদটি প্রথম প্রকাশিত হয় বার্তা ২৪ ডট কম-এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *