বিনোদন

সরকারি অনুদানের টাকা ফেরত পাঠালেন জয়া আহসান

ডেস্ক রিপোর্টঃ ৩ বছর আগে সরকারি অনুদান নেওয়া হয় ‘রইদ’ শিরোনামের সিনেমার জন্য। তবে সিনেমার উপর সৌভাগ্যের রইদ পড়ার পথে, যেন কালো মেঘ বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। হাওয়ায় হাওয়ায় দেশীয় সিনেমার সৌন্দর্য সীমান্ত পার করে বাইরের দেশে ছড়িয়ে দিয়েছিলেন পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমন। এবার সিনেমার দুনিয়ায় ‘রইদ‘ আনবেন তিনি।     

সিনেমাটির প্রযোজকের তালিকায় শীর্ষে নাম রয়েছে বাংলার বিনোদন জগতের রত্ন জয়া আহসানের। অভিনয় জগতে পায়ের নিচের মাটি শক্ত করে এবার নতুন জমিতে ঘাঁটি গড়তে প্রস্তুত তিনি। এই সিনেমা দিয়েই প্রযোজক হিসেবে আত্মপ্রকাশ ঘটানোর কথা অভিনেত্রীর।

জয়া বরাবরই অন্যান্য শিল্পীদের থেকে ভিন্ন। স্রোতে গা না ভাসিয়ে, সবসময়ই চরিত্রে-গল্পে ভিন্নতা রাখেন অভিনেত্রী। তার এই ব্যক্তিত্বের ছাপ পড়তে শুরু করেছে প্রযোজনা জীবনেও। তার সিনেমার জন্য ৩ বছর আগে সরকারি অনুদান দেওয়া হয়। ২০২০-২১ অর্থ বছরে তার সিনেমার শিরোনাম নির্ধারণ করা হয় ‘রইদ’। এই সিনেমার জন্য টাকা গ্রহণ করেছিলেন জয়া। তবে  ৩ বছর পর সিনেমার প্রযোজক এবং পরিচালক উভয়ে অনুদান গ্রহণ না করার সিদ্ধান্ত প্রকাশ করেছেন।

প্রযোজক রূপে অভিনেত্রী জয়া আহসান

মিডিয়া পাড়ায় এই নিয়ে বেশ কানাঘুষা চলছিল। অবশেষে প্রযোজক এবং পরিচালক দু’জনেই মুখ খোলেন। অনেক আগেই সরকারি অনুদান নেওয়া হয়েছে। তবে কিছুতেই নির্ধারিত সময়ে সিনেমার কাজ শুরু করা সম্ভব হচ্ছে না। কয়েক দফায় আলোচনায় বসেও কাজ আগাতে পারেনি ‘রইদ’ টিম। সরকারি টাকা নেওয়ার কিছু নিয়ম-কানুন আছে। টাকা নিয়েও কাজ শুরু হচ্ছেনা- এই ব্যাপারটি অশোভনীয় হিসেবে বিবেচনা করেন অভিনেত্রী এবং প্রযোজক জয়া। তাই সরকারি অনুদানের টাকা ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই সিদ্ধান্তে মত রয়েছে টিমের সকলেরই।

পরিচালক সুমনও জানিয়েছেন, কাজ না আগালে আর সরকারি টাকা এভাবে পড়ে থাকলে উনিশ-বিশ হওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে। এই টাকা নিয়ে কোনো রকম সমালোচনা কাম্য নয়। যেহেতু কাজ শুরু করতে বিলম্ব হচ্ছে এবং কবে কাজ শুরু হবে,তার নিশ্চয়তা নেই; তাই টাকা ফেরত দেওয়াই ভালো। ইতোমধ্যে প্রথম কিস্তির ৬০ লাখ টাকা ফেরত পাঠানো হয়েছে।  

এখন নতুন প্রযোজনা সংস্থার আওতায় সিনেমা তৈরি হবে বলে জানা যায়। একই অর্থবছরের মধ্যে জনপ্রিয় অভিজ্ঞ পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরীও অনুদানের টাকা ফেরত পাঠিয়েছেন।           

সংবাদটি প্রথম প্রকাশিত হয় বার্তা ২৪ এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *